• শনিবার, ২২ জুন ২০২৪, ১২:৫৭ অপরাহ্ন
শিরোনাম:
দুর্নীতি-লুটপাটের খবর উদ্ঘাটনে সাংবাদিকদের সক্ষমতা প্রমাণিত নিউইয়র্কে বিশ্ব শরণার্থী দিবস পালিত নিউইয়র্কে সেইভ দ্য পিপল’র উদ্যোগে হালাল খাদ্য সামগ্রী বিতরণ সিন্দুকছড়ি জোনের পক্ষ থেকে মানবতা ও সমাজ কল্যাণে মানবিক সহায়তা ও ঈদ উপহার সামগ্রী বিতরণ সিন্দুকছড়ি জোনের পক্ষ থেকে মানবতা ও সমাজ কল্যাণে চিকিৎসা সহায়তা প্রদান ফেনীতে রিসাইক্লিং বিজনেস ইউনিটের উদ্বোধন ওয়েব সাইট চালাতে খরচ বাড়বে, কর অব্যাহতি চান ডোমেইন হোস্টিং ব্যবসায়ীরা ভূয়া জামিন নামায়, আসামির জামিন হলুদ সাংবাদিকদের হয়রানির শিকার নানান শ্রেনীপেশার মানুষ সালমান খানকে ফের হামলার পরিকল্পনা, গ্রেপ্তার ৪

অনাস্থা প্রস্তাব নিয়ে উত্তপ্ত ভারতের লোকসভা

অনলাইন ভার্সন
অনলাইন ভার্সন
আপডেটঃ : বুধবার, ৯ আগস্ট, ২০২৩

আন্তর্জাতিক ডেস্ক
ভারতীয় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ও তার সরকারে ওপর আনা অনাস্থা ভোট প্রস্তাব নিয়ে উত্তপ্ত হয়ে উঠেছে লোকসভা। বুধবার (৯ আগস্ট) এই প্রস্তাবের ওপর কথা বলেন কংগ্রেস নেতা রাহুল গান্ধী। এ সময় বিজেপি সরকারের কড়া সমালোচনায় মুখর হন তিনি। রাহুল অভিযোগ করেন, বিজেপি মণিপুর রাজ্যে আগুন জ্বালিয়েছে, এখন তারা হরিয়ানাকে জ্বালানোর চেষ্টা করছে।

তার বক্তব্য শেষ হওয়ার পর কথা বলেন বিজেপি নেত্রী ও কেন্দ্রীয় সরকারের মানব সম্পদ ও উন্নয়নমন্ত্রী স্মৃতি ইরানি। তিনিও রাহুলের সমালোচনা করেন। এছাড়া রাহুলকে নারী বিদ্বেষী হিসেবে অভিহিত করেন স্মৃতি। তিনি দাবি করেন, রাহুল গান্ধী লোকসভার ভেতর উড়ন্ত চুম্বন দিয়েছেন। এরমাধ্যমে লোকসভার নারী সদস্যদের অপমান করেছেন তিনি।

রাহুল গান্ধী তার বক্তব্য শুরু করেন এই বলে, ‘ভারত হলো একটি কণ্ঠস্বর, হৃদয়ের কণ্ঠস্বর। আপনারা মণিপুরের কণ্ঠস্বরকে হত্যা করেছেন। মণিপুরে ভারত মাতাকে হত্যা করেছেন। আপনারা দেশদ্রোহী। আমার মা এখানে বসে আছে। অন্য মা, ভারত মাতাকে মণিপুরে হত্যা করেছেন। একারণে প্রধানমন্ত্রী মণিপুরে যাননি। আপনারা ভারত মাতার রক্ষক নন, হত্যাকারী।’

তিনি আরও বলেছেন, ‘প্রধানমন্ত্রী মণিপুরে যাননি কারণ তিনি এটিকে ভারতের অংশ মনে করেন না। বিজেপি মণিপুরকে বিভক্ত করে ফেলেছে।’ তিনি অভিযোগ করেন, কেন্দ্র সরকার চাইলে সেনাবাহিনী মোতায়েন করে মণিপুরের দাঙ্গা বন্ধ করতে পারত, কিন্তু তারা তা করেনি।

এরপর তিনি হরিয়ানার হিন্দু-মুসলিমদের সাম্প্রতিক দাঙ্গা নিয়ে আলোচনা করেন। তিনি বলেন, ‘আপনারা সব জায়গায় কেরোসিন ছিটিয়েছেন, মণিপুরে আপনারা আগুন জ্বালিয়েছেন, এখন হরিয়ানাতেও একই কাজ করার চেষ্টা করছেন।’

রাহুল এমন মন্তব্য করার পর লোকসভার ভেতর হৈচৈ শুরু হয়। বিজেপি নেতারা তাকে ক্ষমা চাইতে বলেন।

চলতি বছরের মে মাসের শুরুতে মণিপুরে মেতিস ও কুকিদের মধ্যে জাতিগত সহিংসতা বেঁধে যায়। যা পরবর্তীতে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষে রূপ নেয়। এতে ১৭০ জন মানুষ নিহত হলেও প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি কোনো কথা বলেননি। কিন্তু দুই সপ্তাহ আগে দুই নারীকে বিবস্ত্র করে হাঁটানোর ভয়ঙ্কর ভিডিও ভাইরাল হলে অল্প কথা বলতে বাধ্য হন তিনি। কিন্তু মোদি যেন মণিপুর নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করেন সেজন্য কংগ্রেস কয়েকদিন আগে তার সরকারের বিরুদ্ধে অনাস্থা প্রস্তাব আনে। এখন এ এই প্রস্তাবের ওপরই আলোচনা হচ্ছে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো নিউজ