• বৃহস্পতিবার, ২৩ মে ২০২৪, ০২:৪৮ অপরাহ্ন

আলীকদমের ১ চেয়ারম্যানসহ বাপবেটা ৫জন শ্রীঘরে

অনলাইন ভার্সন
অনলাইন ভার্সন
আপডেটঃ : বুধবার, ১২ জুলাই, ২০২৩

জমি দখলে নিতে হত্যার উদ্দেশ্য ধাঁরালো অস্ত্র দিয়ে আঘাত, শ্লীলতাহানি ও অপরাধজনক ভীতি প্রদর্শন করার অপরাধে বান্দরবানের আলীকদম উপজেলার চৈক্ষ্যং ইউনিয়ন পরিষেদের চেয়ারম্যান জয়নাল উদ্দিনসহ তার পরিবারের পাঁচ সদস্যকে কারাগারে পাঠিয়েছে আদালত। ১২জুলাই দুপুর সাড়ে ১২ টার দিকে বান্দরবান জেলা ও দায়রা জজ আদালতে বিচারক মো. ফজলে এলাহী ভূইয়া আসামিদের জামিন আবেদন নামঞ্জুর করে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন। বান্দরবান জেলা ও দায়রা জজ আদালতের প্রশাসনিক কর্মকর্তা (এও) মো. কামরুল হাসান বিষয়টি নিশ্চিত করেন। মামলার আসামিরা হলেন- ইউপি চেয়ারম্যান জয়নাল উদ্দিন, জামাল উদ্দিন, কামাল উদ্দিন, মহিউদ্দিন ও তাদের বাবা নুরুল কবির। তারা সবাই চৈক্ষ্যং ইউনিয়নের নুরুল কবির মেম্বার পাড়া এলাকার বাসিন্দা। খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, ওমর ফারুক নামের এক ব্যক্তির জমি দখলের চেষ্টা ও শারীরিক নির্যাতনের ফৌজদারি মামলায় অভিযুক্ত আসামিদের জেল হাজতে প্রেরণ করেন বিচারক। জেলা ও দায়রা জজ আদালত সূত্র ও মামলার এজাহার থেকে জানা যায়, গত ১ মে সকাল ৯ টায় মামলার আসামিরা একই ইউনিয়নে পাশ্ববর্তী গ্রামের ওমর ফারুকের ৫ একর জমি দখলের চেষ্টা করেন। এসময় ওমর ফারুক বাধা দিলে আসামিরা ধারালো অস্ত্র দিয়ে হামলা চালিয়ে ওমর ফারুককে শারীরিক নির্যাতন করেন। নির্যাতনে ওমর ফারুকের দাঁত ভেঙে যায়। পরে আসামিরা আহত ওমর ফারুকের ঘরের আসবাবপত্র ভাঙচুর করেন। একই সঙ্গে তারা ওমর ফারুকের স্ত্রীর শ্লীলতাহানি করেন বলেও এজাহারে উল্লেখ করা হয়। এ ঘটনায় গত ৮ মে ১৯ জনকে আসামি করে ওমর ফারুক বাদী হয়ে বান্দরবান জেলার চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে মামলা করেন। মামলা হওয়ার পর হাইকোর্ট গত ৩১ মে জয়নাল উদ্দিনসহ পাঁচ আসামিকে বান্দরবান জেলা ও দায়রা জর্জ আদালতে আত্মসমর্পণের নির্দেশ দেন। আসামিরা ৫ জুলাই বান্দরবান জেলা ও দায়রা জর্জ আদালতে আত্মসমর্পন করলে, আদালত ১২ জুলাই শুনানির জন্য দিন ধার্য করেন। অপরদিকে চেয়ারম্যান জয়নাল আবেদীন এর পরিবারে পক্ষ থেকে দাবি করা হয়, মিথ্যা ঘটনা সাজিয়ে তাদের বিরুদ্ধে মামলা দেয়া হয়েছে। চেয়ারম্যানের স্ত্রী জানান, জমি নিয়ে বিরোধ রয়েছে এটা সত্য। তবে চেয়ারম্যানের জনপ্রীয়তায় তার ভাইদের সাথে জগড়ায় লিপ্ত হয়ে ঈর্ষান্বিত মহল তুচ্ছ ঘটনায় রঙ দিয়ে হয়রানী করছে আমার স্বামীসহ শশুরের পরিবারকে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো নিউজ