• সোমবার, ২০ মে ২০২৪, ০৯:৫১ অপরাহ্ন

মাটিরাঙ্গা থানায় দুঃস্থ নারী ও এতিম শিশুদের ঈদ উপহার দিলেন পুলিশ সুপার

অনলাইন ভার্সন
অনলাইন ভার্সন
আপডেটঃ : রবিবার, ৭ এপ্রিল, ২০২৪

আসন্ন ঈদ-উল-ফিতর ২০২৪ উপলক্ষ্যে খাগড়াছড়ি জেলার মাটিরাঙ্গা থানায় দুঃস্থ নারী ও এতিম শিশুদের সাথে ঈদের আনন্দ ভাগ করে নিতে ঈদ উপহার বিতরণ ও একসঙ্গে ইফতার করেছেন খাগড়াছড়ি জেলার  পুলিশ সুপার জনাব মুক্তা ধর পিপিএম (বার) ।

রবিবার (৭ এপ্রিল) বিকালে মাটিরাঙ্গা থানায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে দুঃস্থ নারী ও এতিম শিশুদের মধ্যে ঈদ উপহার বিতরণ করেন পুলিশ সুপার ।

এ সময় উপস্থিত সবাইকে আসন্ন ঈদ-উল-ফিতরের শুভেচ্ছা জানিয়ে পুলিশ সুপার বলেন, “ঈদ মানেই খুশি, ঈদ মানেই আনন্দ। মাসব্যাপী সিয়াম সাধনার পর মুসলমানদের জীবনে এক স্বর্গীয় শান্তি ও আনন্দের বার্তা নিয়ে আসে ঈদুল ফিতর। সমাজে একটি অংশ রয়েছে যাদের কাছে ঈদ-আনন্দ মানেই হলো বেঁচে থাকার লড়াই। দু’বেলা খাওয়ার সংগ্রাম। আজো রয়েছে দুঃখী মানুষের ভীড়। আমরা কি পারিনা- তাদের দুঃখ লাঘবের চেষ্টা করতে। তাদের মুখে একটু হাসি ফোঁটাতে। নতুন পোশাক বা ঈদের অন্য আনন্দগুলো তাদের সাথে ভাগাভাগি করতে। সমাজের বিত্তবানদের প্রতি অনুরোধ, আপনারাও দুঃস্থ নারী ও এতিম শিশুদের পাশে দাঁড়ান। বিলাসী ঈদ উদ্‌যাপনের পরিবর্তে দুঃস্থ নারী ও এতিম শিশুদের পাশে দাঁড়িয়ে সম্মিলিতভাবে আনন্দের ঈদ উদ্‌যাপন করি৷”
পুলিশ সুপার মহোদয় আরো বলেন, “রমজান মাসে ইফতার, সেহরি, যাকাত, ফিতরা কার্যক্রমের মাধ্যমে ধনী-দরিদ্রের সামাজিক ব্যবধান দূর হয়ে সমাজে সাম্যের শিক্ষা প্রতিষ্ঠিত হয়। ইফতারের মাধ্যমে ধনী-গরীব এক কাতারে আসে। আসুন আমরা সবাই দুঃস্থ নারী ও এতিম শিশুদের পাশে দাঁড়িয়ে সাম্যের সমাজ গঠনের মাধ্যমে ২০৪১ সালের মধ্যে স্মার্ট বাংলাদেশ গড়ে তুলি।”

একজন দুঃস্থ নারী ঈদ উপহার সামগ্রী পেয়ে বলেন, পুলিশ সুপার থেকে ঈদ উপহার সামগ্রী পেয়ে ঈদের আনন্দের মাত্রা আরো একধাপ বেড়ে গেল। ঈদের সময় পুরাতন জামা কাপড় পড়তে হয়। কিন্তু এই বছর পুলিশ সুপার মহোদয়ের থেকে নতুন জামা পেয়ে ঈদের আনন্দ উপভোগ করতে পারব। স্যারের কল্যাণে আজ আমাদের আনন্দ বেড়ে গেল। আল্লাহ পুলিশ সুপার মহোদয়ের মঙ্গল করুক।

পুলিশ সুপারের কাছ থেকে ঈদ উপহার পেয়ে উচ্ছ্বাস প্রকাশ করেন অসহায় এবং এতিম শিশুরা। তাদের অনুভূতি জানতে চাওয়া হলে তারা জানায়, প্রত্যেক মা বাবাই তার সন্তানের জন্য ঈদে নতুন জামা কেনার চেষ্টা করেন কিন্তু আমাদের মা বাবা নাই তাই নতুন জামা তো দূরের কথা ভালো খাবারও অনেক সময় ভাগ্যে জুটে না। পুলিশ সুপার থেকে ঈদ উপহার পেয়ে আমরা খুব খুশি হইছি।

এ সময় আরো উপস্থিত ছিলেন খাগড়াছড়ি জেলার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ক্রাইম এন্ড অপস্) মোঃ জসীম উদ্দিন পিপিএম, উপজেলা নির্বাহী অফিসার ডেজি চক্রবর্তী, সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার মাটিরাঙ্গা সার্কেল  আবু জাফর মোঃ সালেহ, অফিসার ইনচার্জ মাটিরাঙ্গা থানা জনাব কমল কৃষ্ণ ধর সহ পুলিশের অন্যান্য কর্মকর্তা এবং সদস্যগণ।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো নিউজ