• বুধবার, ১৭ এপ্রিল ২০২৪, ০৩:০০ পূর্বাহ্ন

দেশের নাগরিকদের কোনো অধিকার নেই, মানবেতর জীবন : শামসুজ্জামান দুদু

অনলাইন ভার্সন
অনলাইন ভার্সন
আপডেটঃ : বুধবার, ৩০ আগস্ট, ২০২৩

নিজস্ব প্রতিবেদক

 

বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান শামসুজ্জামান দুদু বলেছেন, দেশের নাগরিকরা ট্যাক্স-ভ্যাট দিচ্ছে, আইন মানছে, কিন্তু তাদের কোনো অধিকার নেই। তারা মানবেতর জীবন-যাপন করছে।

তিনি বলেন, দেশে কোনো সরকার নেই। সরকার থাকলে দেশে সাতশর বেশি মানুষ গুম এবং নিখোঁজ হতো না। সরকার থাকলে নির্বিচারে এভাবে মানুষ হত্যা করা হতো না।

বুধবার (৩০ আগস্ট) আন্তর্জাতিক গুম প্রতিরোধ দিবস উপলক্ষ্যে আয়োজিত এক সমাবেশে তিনি এসব কথা বলেন। জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে এ সমাবেশের আয়োজন করে জাতীয়তাবাদী গণতন্ত্র পরিষদ।

সমাবেশে শামসুজ্জামান দুদু বলেন, বাংলাদেশের স্বাধীনতার সূচনা লগ্নে অন্যতম সাহিত্যিক ও চলচ্চিত্রকার জহির রায়হান নিখোঁজ হয়ে গেলেন। অনেকে বলেন, তার কাছে যারা মুক্তিযুদ্ধের দাবিদারদের আসল চরিত্র, আসল চিত্র, আসল ঘটনা ছিল। এই যে গুম শুরু হয়েছে, তা গতকাল পর্যন্তও হবিগঞ্জে হয়েছে। ৬০০-৭০০ মানুষকে গুম করা হয়েছে। সন্তান তার বাবার মুখ দেখতে চায়, হাত ধরে স্কুলে যেতে চায়। এই বাচ্চা তার অভিভাবককে, বাবাকে পাচ্ছে না।

তিনি বলেন, ১৫ আগস্ট নির্মম হত্যাকাণ্ডে প্রধানমন্ত্রী তার স্বজনদের হারিয়েছেন। আমরা তার কষ্ট বুঝি। কিন্তু প্রধানমন্ত্রী এই ৬০০-৭০০ মানুষের পরিবারের কষ্ট স্বীকার করতে চান না। এইজন্যই আমি বলেছি, দেশে সরকার আছে, সেটি মনে হচ্ছে না।

দুদু আরও বলেন, যিনি দেশে গণতন্ত্রের পুনঃপ্রতিষ্ঠা করেছেন, স্বৈরাচারদের পতন ঘটিয়েছেন, নারী শিক্ষার অগ্রগতি যার হাত ধরে হয়েছে, সেই খালেদা জিয়াকে একটি মিথ্যা মামলায় পাঁচ বছর জেলখানায় রাখা হয়েছে। সংবিধানের স্বীকৃত বিষয় মানুষের কথা অধিকার থাকবে। কিন্তু তারেক রহমানের বক্তব্য সোশ্যাল মিডিয়া থেকে শুরু করে কোথাও রাখতে দেওয়া হচ্ছে না। তিনি আওয়ামী লীগের প্রতিদ্বন্দ্বী দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারপার্সন। তার কথা কেউ প্রকাশ করতে পারবে না। যে কোর্ট মানুষের অধিকার নিশ্চিত করবে, সেই কোর্ট মানুষের অধিকার কেঁড়ে নিচ্ছে। এভাবে চলতে পারে না।

‘এজন্য আমরা বলেছি এই সরকারকে পদত্যাগ করতে হবে, সংসদ ভেঙে দিতে হবে এবং একটি নির্বাচন কমিশন আলোচনার মধ্য দিয়ে গঠন করতে হবে। আজকে বলছি। তার মানে এই নয় যে বলতেই থাকবো। এক সময় বিএনপি এবং তার সৈনিকরা এই বলাটাকে কার্যকর করবে। আপনি বাধ্য হবেন পদত্যাগ করতে, সংসদ ভেঙে দিতে, নির্বাচন কমিশনকে পুর্নগঠন করতে। কারণ এই জাতি মুক্তিযুদ্ধ করা জাতি, এই জাতি লড়াই-সংগ্রাম নয়, যুদ্ধের মধ্য দিয়ে স্বাধীনতা ও গণতন্ত্র অর্জন করেছে।’

জাতীয়তাবাদী গণতন্ত্র পরিষদের সভাপতি মোক্তার আকন্দের সভাপতিত্বে সমাবেশে আরও বক্তব্য রাখেন বিএনপি চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা হাবিবুর রহমান হাবিব, বিএনপির গণশিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক অধ্যক্ষ সেলিম ভুঁইয়া, সহ-স্থানীয় সরকার বিষয়ক সম্পাদক শাম্মী আক্তার প্রমুখ।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো নিউজ

You cannot copy content of this page

You cannot copy content of this page