ডেস্ক : পদ্মা সেতু রেল প্রকল্পের সার্বিক কাজের ৭৩ শতাংশ অগ্রগতি হয়েছে। কাজের অগ্রগতি সন্তোষজনক। আগামী জুনে ঢাকা থেকে ভাঙ্গা পর্যন্ত ট্রেন চলবে। সেভাবেই কাজ এগিয়ে চলছে।

আজ মঙ্গলবার (১০ জানুয়ারি) দুপুরে পদ্মা সেতুর জাজিরা প্রান্তে পদ্মা সেতুর রেল প্রকল্পের কাজ পরিদর্শনে এসে রেলমন্ত্রী নূরুল ইসলাম সুজন এসব কথা বলেন।

রেলমন্ত্রী বলেন, আমরা জুন মাসে ঢাকা থেকে ফরিদপুরের ভাঙ্গা পর্যন্ত ট্রেন চলাচল শুরু করার ব্যাপারে আশাবাদী। সেই লক্ষ্য পূরণের চেষ্টা চলছে।

মন্ত্রী আরও বলেন, সামনে নির্বাচন। আগামী ২০২৪ সাল পর্যন্ত আমাদের রেল প্রজেক্টের মেয়াদ আছে। আগেই ভাঙ্গা থেকে ফরিদপুর পর্যন্ত রেলসংযোগ করা হয়েছে। আর আগামী জুনের মধ্যে ভাঙ্গা থেকে ঢাকা পর্যন্ত কাজ শেষ হবে। কাজের সুবিধার জন্য ঢাকা থেকে গেন্ডারিয়া পর্যন্ত রেলের কাজ বন্ধ রাখা হয়েছে। ঢাকা থেকে মাওয়া পর্যন্ত রেললাইন আমাদের জন্য চ্যালেঞ্জিং একটি কাজ। আমাদেরকে সফলভাবে কাজ করে যেতে হবে।

নূরুল ইসলাম সুজন বলেন, ঢাকা থেকে মাওয়া পর্যন্ত ৬৯ ভাগ, ভাঙ্গা থেকে মাওয়া পর্যন্ত ৮০ ভাগ এবং ভাঙ্গা থেকে যশোর পর্যন্ত ৬০ ভাগ কাজ শেষ হয়েছে। সব মিলিয়ে ৭৩ ভাগ কাজের অগ্রগতি হয়েছে। যেহেতু এখন কাজের মৌসুম, তাই দিনরাত কাজ চলমান রয়েছে।

সাংবাদিকদের তিনি আরও জানান, প্রকল্পের অগ্রগতি এবং কাজের বর্তমান গতি নিয়ে তিনি সন্তুষ্ট। ঢাকা থেকে যশোর পর্যন্ত পদ্মা সেতুর রেল সংযোগের পুরো দৈর্ঘ্য প্রায় ১৬৯ কিলোমিটার। এই প্রকল্পের ব্যয় ধরা হয়েছে প্রায় ৩৯ হাজার ২৪৭ কোটি টাকা; এরমধ্যে প্রায় ১৮ হাজার কোটি টাকা দেবে বাংলাদেশ সরকার এবং বাকি অর্থায়ন করবে চীন সরকার।